ভাঙ্গা উপজেলার খাদ্য বান্ধব কর্মসূচির ডিলারের কাছ থেকে উপজেলা খাদ্য কর্মকর্তা তরিকুল ইসলামের টাকা নেওয়ার একটা ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার (২১ মে) দুপুরে এ সংক্রান্ত ২ মিনিট ২৭ সেকেন্ডের একটি ভিডিও ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে।

ভিডিওতে দেখা যায়, ভাঙ্গা উপজেলার ঘারুয়া ইউনিয়নের খাদ্য বান্ধব কর্মসূচির ডিলার আবুল বাশার মিয়ার কাছ থেকে টাকা নিচ্ছেন ভাঙ্গা উপজেলা খাদ্য কর্মকর্তা তরিকুল ইসলাম। এ সময় আলগী ইউনিয়নের খাদ্য বান্ধব কর্মসূচির ডিলার মো. আসাদুজ্জামান ঘারুয়া ইউনিয়নের খাদ্য বান্ধব কর্মসূচির ডিলার আবুল বাশার মিয়ার সঙ্গে ছিলেন। এ সময় এক ডিলারকে বলতে শোনা যায়, স্যার যে কয়বার যাওয়া লাগে আপনি যাইয়েন। কোনো লোক পাঠায়েন না। আপনি নিজে খারাপ কথা বইলেন, কিন্তু অন্যকে দিয়ে বলাইয়েন না।

আরও এক ডিলার বলেন, স্যার যা বলার আপনি বলে দিয়েন। আপনার ডিলাররা কোনো অনিয়ম করে না।

এ বিষয়ে আলগী ইউনিয়নের খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ডিলার মো. আসাদুজ্জামান বলেন, এ জাতীয় ভিডিওর কথা শুনেছি। তবে ওই জায়গায় আমি ছিলাম না। ভিডিওর কথা দু’একজন আমাকে বলেছে। যারা ভিডিও ছড়িয়েছে, দেখেছে তারাই বলতে পারবে।

ঘারুয়া ইউনিয়নের খাদ্য বান্ধব কর্মসূচির ডিলার আবুল বাশার মিয়ার বলেন, যে ভিডিওর কথা বলা হচ্ছে এটা বছর খানেক আগের। আমি ডিও উত্তোলনের সময় স্যারের (উপজেলা খাদ্য কর্মকর্তা) কাছ থেকে ১০ হাজার টাকা ধার নিয়েছিলাম। আমি ডিলার আসাদ ও মিজানের কাছে টাকা পেতাম। ওই টাকা নিয়ে আমি স্যারের ধার পরিশোধ করি। স্যারকে আমি ঘুষ দেইনি।

এ বিষয়ে ভাঙ্গা উপজেলা খাদ্য কর্মকর্তা মো. তরিকুল ইসলাম ঢাকা পোস্টকে বলেন, এক ডিলারের কাছে আমার টাকা পাওনা ছিল। তিনি সেই টাকা পরিশোধ করেছেন। এই ভিডিওটি কীভাবে ছড়ালো তা বুঝতে পারছি না।

জীবন নিয়ে উক্তি