ভারতের লোকসভা নির্বাচনে ৫৪৩টি আসনের ফলাফল ঘোষণা করা হয়েছে। সেখানে পশ্চিমবঙ্গের যাদবপুর কেন্দ্রে তৃণমূল কংগ্রেসের হয়ে জয়ী হয়েছেন টালিউড অভিনেত্রী সায়নী ঘোষ।

পরনে সাদা শাড়ি, গায়ে আঁচল, পায়ে চটি পরে এমন ঐতিহ্যবাহী বেশে ভোটের মাঝে নিজের প্রচারটা বেশ ভালোভাবেই চালিয়েছিলেন অভিনেত্রী। এর মধ্যে শিবলিঙ্গের একটি ছবি পোস্ট করেই বিতর্কে জড়ান সায়নী। এবার ভোটে জিততে সেই শিবলিঙ্গের প্রতিই আস্থা রেখেছিলেন অভিনেত্রী।

ভারতীয় গণমাধ্যমের খবর, হাতে প্রশংসাপত্র ও একগাল হাসি নিয়ে স্থানীয় একটি কালী মন্দিরে হাজির হয়েছিলেন সায়নী। সেখানে ছিল শিবলিঙ্গও। মন্দিরে পৌঁছাতেই মহাদেবের পায়ে রীতিমতো লুটিয়ে পড়লেন তিনি। দিতে থাকলেন ‘হর হর মহাদেব’ ধ্বনিও।

সামাজিক মাধ্যমে এ ঘটনার একটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়তেই শুরু হয় আলোচনা। অনেকেই বলছেন এই ভক্তি শুধু লোক দেখানো।

বিজয়ী সায়নী বলেন, ‘যাদবপুর লোকসভার মা, মাটি মানুষকে আমার প্রণাম এবং কৃতজ্ঞতা। এই জয় গণতন্ত্রের জয়, এই জয় আপামর বঙ্গবাসী তথা ভারতবর্ষের জয়। আগামীদিনে মাথা উঁচু করে তৃণমূলের পতাকা বহন করবো এবং মমতা বন্দোপাধ্যায়ের অনুপ্রেরণায় এবং অভিষেক বন্দোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে মাথা নীচু করে যাদবপুরের মা, মাটি মানুষকে পরিষেবা পৌঁছে দিতে আমি প্রতিজ্ঞাবদ্ধ।’

এর আগে সায়নীর জয়ে এক পোস্ট লিখে অভিনন্দন জানিয়েছেন অভিনেতা ও পরিচালক রাজ চক্রবর্তী। তিনি বলেছেন, সায়নী যথেষ্ট বুদ্ধিমতী এবং দলের ও বড় সম্পদ; এতটা অল্প বয়সে রাজনীতির ময়দানে এমনটি সচরাচর দেখা যায় না। সেখানে সায়নী শুরু থেকেই নিজেকে বার বার প্রমাণ করেছে।

জীবন নিয়ে উক্তি