বাবার অসুস্থতার জন্য পারিবারিক হার্ডওয়্যারের ব্যবসায় হাল ধরেছিলেন র্যাপার আলি হাসান; কিন্তু ক্ষতির মুখে দীর্ঘদিনের স্মৃতিবিজড়িত সেই ব্যবসা প্রায় বছরখানেক আগে গুটিয়ে নিতে হয়েছে তাকে। আর এই পারিবারিক ব্যবসায় গিয়ে নিজ জীবনের বাস্তবতা তুলে এনেছেন গানে গানে।

এর আগে ‘ব্যবসার পরিস্থিতি’ শিরোনামের একটি গানের মাধ্যমে অল্প সময়ের মধ্যেই আলোচনায় উঠে আসেন এই আলি হাসান। হাসানের বাড়ি নারায়ণগঞ্জে। গানটির মাধ্যমে দর্শকমহলে বেশ পরিচিতিও লাভ করেন। আর আলোচিত এই গায়ক সম্প্রতি আলোচনায় এসেছেন গানকে হারাম দাবি করে এক মন্তব্যের মাধ্যমে; যা নিয়ে নানা চর্চা শুরু হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

একটি গণমাধ্যমে এসে র্যাপার আলি হাসান বলেন, গান বাজনার টাকা হারাম। এখানে কোনো হাদিস চলবে না; যা হারাম তা হারামই। আমার অটো বিজনেসের টাকা হালাল। সংগীত থেকে আয় হচ্ছে হারাম। এজন্য ব্যবসার টাকায় (হালাল আয়ে) বাজার সদাই করি, আর মিডিয়ার টাকায় (হারাম আয়) বিল্ডিং তৈরি করি। মিলাই-ঝিলাই করতেছি সব।

অনুষ্ঠানের উপস্থাপক তাকে প্রশ্ন করেন, বউ কিছু বলে না যে তুমি এত বড় স্টার হয়ে গেছ? জবাবে র্যাপার আলি হাসান বলেন, আমার বউ ধার্মিক, আমার মা-বাবাও ধার্মিক। সবাই নামাজ-কালাম নিয়ে আছেন।

এছাড়াও এই র্যাপার জানান, তিনি গান-বাজনা করেন বলে তা নিয়ে পরিবারে কোনো সমস্যা হয় না। ২০১০ সালে র্যাপ গানের সঙ্গে যুক্ত হন তিনি। ইতোমধ্যে কয়েকটি কনসার্টে গান পরিবেশন করেছেন। আর সম্প্রতি কোক স্টুডিওর গানে অংশ নেন র্যাপার আলি হাসান।

জীবন নিয়ে উক্তি