কুয়েতে ‘ব্ল্যাক মান্ডে ডাউন’ অভিযানে বাংলাদেশিসহ ৭৫০ অবৈধ অভিবাসী গ্রেফতার হয়েছেন। সোমবার (১ জুলাই) ভোর থেকে এ অভিযান চলছে।

আইন লঙ্ঘনকারীদের ধরতে আবাসিক ও বাণিজ্যিক এলাকার প্রবেশদ্বার ও বের হওয়া পথে এ তল্লাশি চালানো হচ্ছে। দেশটির জাহরা, জিলিব আল শুয়েখ, ফরওয়ানিয়া, খাইতান, আল-আহমদি, সালমিয়া, হাওয়ালি, ময়দান হাওয়ালি ও জাবরিয়ায় অভিযান চালানো হয়।

অভিযানের প্রথম দিন বিভিন্ন দেশের ৭৫০ জনের বেশি নাগরিককে গ্রেফতার করা হয়েছে। এরমধ্যে এক বাংলাদেশি ২২ বছর ধরে অবৈধভাবে বসবাস করে আসছিলেন।

কুয়েতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, গ্রেফতারদের চারদিনের মধ্যে তাদের নিজ নিজ দূতাবাসের সঙ্গে সমন্বয় করে কুয়েতে আজীবন ও উপসাগরীয় দেশগুলো থেকে পাঁচ বছরের জন্য পুনরায় প্রবেশ নিষিদ্ধ করা হবে। আইন লঙ্ঘনকারীদের যারা আশ্রয় দেবে তাদের বিরুদ্ধেও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছে দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

দেশটির একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা সতর্ক করে বলেন, কুয়েতে কোনো আইন লঙ্ঘনকারী পালিয়ে থাকতে পারবে না।

কুয়েতে ১৭ মার্চ শুরু হওয়া অবৈধ প্রবাসীদের সাধারণ ক্ষমার মেয়াদ ১৭ জুন শেষ হয়। এরপর মেয়াদ বাড়িয়ে ৩০ জুন করা হয়। তিন মাসেরও বেশি সময় ধরে চলতে থাকা সাধারণ ক্ষমার সুযোগ গ্রহণ করেছেন মাত্র ৩৫ হাজার জন।

মা নিয়ে উক্তি