দক্ষিণ কোরিয়ার সেওংনামের একটি টাওয়ারে খাবার পরিবেশনে বৈপ্লবিক পরিবর্তন এনেছে জনপ্রিয় কপিশপ স্টারবাকস। ২৮ তলা ভবনটিতে তারা প্রায় ১০০ সার্ভিস রোবটের মাধ্যমে কাস্টমারদের অর্ডার পৌঁছে দিচ্ছে।

স্টারবাকস জানায়, ২০২২ সালে চালু হওয়া ভবনটিতে স্টাফরা স্মার্টফোনের মাধ্যমে অর্ডার করেন। রোবটগুলো অর্ডার অনুযায়ী ডেলিভারি প্যাকেজ, ডকুমেন্টস, কফি ও খাবার সরবরাহ করে থাকে।

১১০ সেন্টিমিটার উচু প্রতিটি রোবটে ডেলিভারির জন্য বক্স রয়েছে । দ্রুত ও ভালোভাবে ডেলিভারি নিশ্চিতে এগুলো ছোট ছোট লিফট ব্যবহার করে থাকে।
রোবটগুলোকে ডেটা সেন্টার থেকে ভবনের থ্রিডি ম্যাপের মাধ্যমে দূর থেকে চালানো হয়। এগুলো ফাইভ-জি সিগন্যালের মাধ্যমে সার্ভারের সাথে যোগাযোগ করে। প্রতি সেকেন্ডে রোবটগুলো এক মিটার গতিতে চলতে পারে। ক্যামেরা ও সেন্সর ব্যবহার করে সংঘর্ষ এড়াতে।

প্রযুক্তিগত উদ্ভাবনের শীর্ষস্থানীয় নেভার ভবনটি নির্মাণের জন্য ৩৮০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগ করেছে। এটি রোবোটিক্স, কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা (এআই) ও ক্লাউড পরিষেবার কোম্পানিগুলোর অগ্রগতির জন্য ল্যাব হিসাবে কাজ করে।

নেভার ল্যাবের সিইও সিওক সাং-ওক নিক্কেই এশিয়াকে বলেছেন, এখানকার মূল প্রযুক্তিটি হচ্ছে একটি বৃহৎ স্থানের মধ্য বিপুল সংখ্যক রোবটকে দক্ষতার সাথে চলাচল করানো। আমরা এই সিস্টেমটি বাইরেও বিক্রি করবো।

ভবনটির লোকবল ধারণক্ষমতা প্রায় ৭ হাজার জন। রোবটগুলোর স্বয়ংক্রিয় কাস্টমার সার্ভিস ও বুদ্ধিমান ডেলিভারি সিস্টেম কফিশপের ভিন্নধর্মী এক অত্যাধুনিক ভবিষ্যতেরই যেন আভাস দিচ্ছে। সূত্র : ইয়াহু নিউজ

জীবন নিয়ে উক্তি