প্রথমবার ২০ দল নিয়ে অনুষ্ঠিত হচ্ছে চার-ছক্কার এই টুর্নামেন্ট। চার গ্রুপে ভাগ হয়ে মোট ২০টি দল লড়াই করবে এই শিরোপার জন্য। এই বিশ্বকাপের প্রাইজমানি ঘোষণা করেছে ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)। এবারের বিশ্বকাপে মোট ১১.২৫ মিলিয়ন ডলার বা প্রায় ১৩২ কোটি টাকার প্রাইজমানি দেওয়া হবে। এবারের আসরে বাংলাদেশ দল যদি একটি ম্যাচও না জিততে পারে তারপরও ২ কোটি ৬৪ লাখ টাকা পাবে।

এবারের আসরে অংশগ্রহণকারী প্রতিটি দল কমপক্ষে ২ লাখ ২৫ হাজার ডলার পাবে। যা বংলাদেশি টাকায় ২ কোটি ৬৪ লাখ টাকা। অর্থ্যাৎ বাংলাদেশ দল যদি একটি ম্যাচও না জিততে পারে তারপরও এই টাকা পাবে। আর জিততে পারলে প্রত্যেক জয়ের জন্য বাড়তি টাকা পাবে। একই সঙ্গে পরের পর্বগুলোতে যেতে পারলেও বাড়বে অর্থের পরিমাণ।

টুর্নামেন্টের জন্য সর্বমোট প্রাইজমানি ঘোষণা করা হয়েছে ১১.২৫ মিলিয়ন ডলার বা প্রায় ১৩২ কোটি টাকা। আগের আসরে সেটা ছিল ৫৬ লাখ ডলার বা ৬৫ কোটি টাকা। অর্থাৎ গত আসরের চেয়ে এবার প্রায় দিগুণ বরাদ্দ দিয়েছে আইসিসি। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে এবারই সবচেয়ে বেশি প্রাইজমানির ঘোষণা দিলো আইসিসি।

এবার চ্যাম্পিয়ন দল পাবে ২.৪৫ মিলিয়ন ডলার অর্থাৎ বাংলাদেশি টাকায় তারা পাবে প্রায় ২৯ কোটি টাকা। রানার্সআপ দলের জন্য রাখা হয়েছে ১.২৮ মিলিয়ন ডলার। যা বাংলাদেশি টাকায় প্রায় সাড়ে ১৫ কোটি টাকা। চ্যাম্পিয়ন ও রানার্সআপ দল আগের চেয়ে বেশি মূল্যের অর্থ পাচ্ছে।

বিশ্বকাপে সুপার এইট থেকে বাদ পড়া চার দল পাবে ৩ লাখ ৮২ হাজার ৫০০ ডলার করে। যা বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ৪ কোটি ৫০ লাখ টাকা। এছাড়া সেমি-ফাইনাল ও ফাইনালে জয়ের জন্য প্রতি দল পাবে অতিরিক্ত ৩১ হাজার ১৫৪ ডলার। যা বাংলাদেশি টাকায় ৩৬ লাখ ৫৬ হাজার টাকা।

সেমি-ফাইনাল থেকে বাদ পড়া দল পাবে ৭ লাখ ৮৭ হাজার ৫০০ মার্কিন ডলার। যা বাংলাদেশি মূল্যে দাঁড়ায় ৯ কোটি ২৪ লাখ টাকা। এছাড়া ৯, ১০, ১১ ও ১২ নম্বরে থাকা প্রত্যেক দল পাবে ২৪৭,৫০০ মার্কিন ডলার বা বাংলাদেশি টাকায় ২ কোটি ৯০ লাখ টাকা করে।

বিশ্বকাপে ১৩ থেকে ২০ নম্বরে থাকা প্রতিটি দল ২২৫ হাজার ডলার পাবে। যা বংলাদেশি টাকায় ২ কোটি ৬৪ লাখ টাকা। অর্থাৎ বিশ্বকাপে অংশ নেওয়া দল কোন ম্যাচ না জিতলেও আড়াই কোটির টাকারও বেশি প্রাইজমানি পাবে।

আগামী ৮ জুন সকাল ৬টা ৩০ মিনিটে ডালাসে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে বিশ্বকাপ মিশনে নামছে বাংলাদেশ। এরপর ১০ জুন নিউ ইয়র্কে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে মাঠে নামবে হাথুরুসিংহের শিষ্যরা। রাত ৮টা ৩০ মিনিটে এই ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে। ১৩ জুন তৃতীয় ম্যাচে সেন্ট ভিনসেন্টে নেদারল্যান্ডসের মুখোমুখি হবে টাইগাররা। বাংলাদেশ সময় রাত ৮টা ৩০ মিনিটে হবে ম্যাচটি। একই ভেন্যুতে গ্রুপপর্বের শেষ ম্যাচে বাংলাদেশ সময় ভোর ৫টা ৩০ মিনিটে ১৬ জুন নেপালের বিপক্ষে লড়বে বাংলাদেশ।

১৭ জুনের মধ্যে শেষ হবে গ্রুপপর্বের খেলা। এরপর ১৯ জুন থেকে ২৪ জুন পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে সুপার এইটের ম্যাচগুলো। দুটি সেমিফাইনাল হবে ২৬ জুন গায়ানায় এবং ২৭ জুন ত্রিনিদাদ অ্যান্ড টোবাগোতে। আর ২৯ জুন বার্বাডোজে হবে ফাইনাল।

বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ স্কোয়াড: নাজমুল হোসেন শান্ত (অধিনায়ক), তাসকিন আহমেদ (সহ অধিনায়ক), লিটন দাস, সৌম্য সরকার, তানজিদ হাসান তামিম, সাকিব আল হাসান, তাওহীদ হৃদয়, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, জাকের আলি অনিক, তানভীর ইসলাম, শেখ মেহেদী হাসান, রিশাদ হোসেন, মুস্তাফিজুর রহমান, শরিফুল ইসলাম, তানজিম হাসান সাকিব।

জীবন নিয়ে উক্তি