দক্ষিণ কোরিয়ার অন্যতম ধনকুবের চে তায়ে-ওনকে বিচ্ছেদের পর সাবেক স্ত্রীকে রেকর্ড ১ লাখ ৩৮ হাজার কোটি ওন, অর্থাৎ ১০০ কোটি ডলার দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। এটিই এখন পর্যন্ত দেশটির সবচেয়ে ‘ব্যয়বহুল’ বিবাহ বিচ্ছেদের ঘটনা। খবর বিবিসির।

সিউল হাইকোর্ট স্থানীয় সময় গতকাল বৃহস্পতিবার আলোচিত এই রায় দিয়েছেন। স্ত্রী রোহ সো-ইয়ংয়ের সাথে ৩৫ বছরের বিবাহিত জীবনের ইতি টানলেন ধনকুবের চে তায়ে-ওন। প্রায় এক দশক সংসার করার পর চে-এর বিয়ে ভেঙে যায়।

স্বামীর বিবাহবহির্ভূত প্রেম (পরকীয়া) ও সন্তানের বাবা হওয়ার ঘটনা প্রকাশ পেলে স্ত্রী রোহ সো-ইয়ংয়ের সঙ্গে এই বিচ্ছেদের ঘটনা ঘটে। রোহ সো-ইয়ং সাবেক রাষ্ট্রপতি রোহ তাই-উয়ের কন্যা। চে তায়ে-ওন দক্ষিণ কোরিয়ার প্রভাবশালী বহুজাতিক করপোরেশন এসকে গ্রুপের চেয়ারম্যান।

সিউল হাইকোর্ট রায় দিয়েছেন, ওনের এই কম্পানির শেয়ার তার সাবেক স্ত্রী সো-ইয়ং পাবেন। এদিকে চে-এর আইনজীবী বলেছেন, তিনি এই রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করবেন। আইনজীবী যুক্তি দিয়েছেন,

‘আদালত রোহর একতরফা দাবি বাস্তব ধরে নিয়েছেন।’ চে ১৯৮৮ সালে রোহ সো-ইয়ংকে বিয়ে করেছিলেন, কিন্তু তারা বছরের পর বছর ধরে আলাদাই ছিল।

নিম্ন আদালত ২০২২ সালে ওনকে ছয় হাজার ৬৫০ কোটি ওন দেওয়ার আদেশ দিয়েছিল। ওনের এসকে গ্রুপের শেয়ার দেওয়ার জন্য সো-ইয়ং যে অনুরোধ জানিয়েছিলেন,

তা আদালত নাকচ করে দিয়েছিল। তবে এবার উল্টো রায়ে হাইকোর্ট শেয়ারগুলোকে যৌথ সম্পত্তি হিসেবে বিবেচনা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

রায়ে আদালত বলেছেন, ‘এই রায় দেওয়া যুক্তিসঙ্গত। স্ত্রী রোহ চে-এর ব্যবসার (এসকে গ্রুপ) মূল্য বাড়াতে অনেক ভূমিকা রেখেছিলেন।’

আদালত চে তায়ে-ওনের সম্পদের মূল্য প্রায় চার লাখ কোটি ওন (দক্ষিণ কোরীয় মুদ্রা) ধরেছেন। স্ত্রী রোহ এই সম্পদের আনুমানিক ৩৫ শতাংশ পাবে। এই দম্পতির তিনটি সন্তান রয়েছে।

জীবন নিয়ে উক্তি