একটি বিশেষ প্লেন কুয়েতের অগ্নিকাণ্ডে নিহত ৪৫ ভারতীয়ের মরদেহ নিয়ে রওয়ানা দিয়েছে। এটি সরাসরি ভারতের কেরালায় অবতরণ করবে। মর্মান্তিক এই দুর্ঘটনায় কেরালার ২৪ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানা গেছে। বাকিরা ভারতের অন্যান্য রাজ্যের বাসিন্দা।

এর আগে কুয়েতের অগ্নিকাণ্ডে মৃত ভারতীয়দের তালিকা প্রকাশ করা হয়। সেই তালিকা অনুযায়ী, মর্মান্তিক ওই দুর্ঘটনায় ৪৫ জন ভারতীয় নাগরিকের মৃত্যু হয়েছে। মৃতদের মধ্যে রয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের নাগরিকও। তিনি মেদিনীপুরের বাসিন্দা।

৬ জন তামিলনাড়ুর বাসিন্দা। বাকিরা উড়িষ্যা, অন্ধ্রপ্রদেশ, বিহার, কর্ণাটক ও পশ্চিমবঙ্গের বাসিন্দা।
গত বুধবার ভোরে কুয়েতের রাজধানী কুয়েত সিটির দক্ষিণে মাঙ্গাফ এলাকার একটি বহুতল ভবনে ভয়াবহ আগুন লাগে। আগুনের লেলিহান গ্রাসে পুড়ে মৃত হয় ৪৯ জনের।

এদিকে আগুন লাগার কারণ নিয়ে ধোঁয়াশা রয়েছে। স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের দাবি, বহুতল ভবনটিতে গ্যাস লিক হওয়ার কারণেই এই মর্মান্তিক ঘটনা ঘটেছে। তবে সরকারিভাবে কিছু জাননো হয়নি। কুয়েত সরকারের পক্ষ থেকে ঘটনার তদন্তে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। নিহত শ্রমিকদের মধ্যে ভারতীয় ছাড়াও মিশর, নেপাল, পাকিস্তান ও ফিলিপাইনের বাসিন্দা রয়েছেন।

কুয়েতের এই ঘটনার পর বুধবার একটি উচ্চপর্যায়ের বৈঠক করেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সেখানে স্থির হয়েছে নিহতদের পরিবারকে ২ লাখ রুপি করে ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে।

কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী এক্স হ্যান্ডলে একটি পোস্ট করে পশ্চিম এশিয়ায় কর্মরত ভারতীয়দের সুরক্ষার বিষয়টি দেখার জন্য নবনির্বাচিত সরকারকে আর্জি জানিয়েছেন।

মা নিয়ে উক্তি