মাংগাফ এলাকায় অগ্নিকাণ্ডে এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ৪৯ জন প্রবাসী। এর মধ্যে ৪০ জনই ভারতীয় নাগরিক। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন অন্তত ৫৬ জন। তবে এখন পর্যন্ত কোনো বাংলাদেশি আহত বা নিহত হওয়ার খবর পাওয়া যায়নি।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ভবনটি ৬তলা। এনবিটিসি কোম্পানির শ্রমিকদের ক্যাম্প। ভোর ৪টা ২০ মিনিটে আগুনের সূত্রপাত হয়। তবে ঠিক কোথা থেকে আগুনের সূত্রপাত সেটি এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি। ধারণা করা হচ্ছে, নিচতলায় রাখা গ্যাস সিলিন্ডার থেকে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটতে পারে।

তারা জানান, মুহূর্তের মধ্যে এটি ওপরের দিকে ছড়িয়ে যায়। যেহেতু এই সময় সবাই ঘুমন্ত অবস্থায় ছিল তাই বের হওয়ার সুযোগ ছিল না। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিস দ্রুত ঘটনাস্থলে গেলেও বহুতল ভবন হওয়ায় আগুন নেভাতে বেশ বেগ পেতে হয়।

বাংলাদেশ দূতাবাসের তথ্যমতে, কুয়েতে যে ভবনে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে সেখানে কোনো বাংলাদেশি ছিল এমন কোনো তথ্য নেই। দূতাবাসের চার্জ দ্য অ্যাফেয়ার্স আবুল হোসেন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

ওই আবাসিক ভবনে কোনো বাংলাদেশি শ্রমিক থাকতেন কি না এ বিষয়ে আমাদের কাছে এখন পর্যন্ত কোনো তথ্য নেই। যে প্রতিষ্ঠানের কর্মীরা সেখানে থাকতেন, তাদের সেখানে বাংলাদেশ দূতাবাস থেকে সত্যায়িত কোনো চাকরির চাহিদাপত্র ছিল না।

মা নিয়ে উক্তি