কুয়েতের নতুন ক্রাউন প্রিন্স নিযুক্ত হয়েছেন শেখ সাবাহ খালেদ আল-হামাদ আল-সাবাহ। দেশটির আমির শেখ মেশাল আল-আহমদ আল-সাবাহ শনিবার (১ জুন) তাকে এই পদে নিয়োগ দেন।শেখ সাবাহ খালেদ আল-হামাদ অতীতে দেশটির প্রধানমন্ত্রী ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্বপালন করেছেন। খবর এএফপির।সিংহাসন গ্রহণের মাত্র ছয় মাস এবং সংসদ স্থগিত করার কয়েক সপ্তাহ পরে এই সিদ্ধান্ত নিলেন কুয়েতের আমির।

৭১ বছর বয়সী শেখ সাবাহ খালেদ আল-হামাদ ২০১১ সাল থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত উপসাগরীয় এই দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী এবং এরপর ২০২২ সাল পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রী ছিলেন।

নির্বাচনের মাত্র ছয় সপ্তাহ পরে ৮৩ বছর বয়সী আমির শেখ মেশাল আল-আহমদ আল-সাবাহ সংসদ ভেঙে দেয়ার পর কুয়েত গত মে মাসে নতুন করে রাজনৈতিক অস্থিরতায় নিমজ্জিত হয়। সেসময় সংবিধানের বেশ কিছু ধারাও স্থগিত করেন তিনি।

গত বছরের ডিসেম্বরে রাষ্ট্রপ্রধানের দায়িত্ব নেয়া এই আমির এরপর দ্বিতীয় সরকারের নাম ঘোষণা করেন।

মূলত অন্যান্য উপসাগরীয় দেশগুলোর চেয়ে কুয়েতের শাসন ব্যবস্থা কিছুটা ভিন্ন। কুয়েতের একটি প্রভাবশালী পার্লামেন্ট রয়েছে যদিও দেশটিতে বেশিরভাগ ক্ষমতাই থাকে রাজপরিবারের কাছে।

আইন প্রণেতাদের হাতে ক্ষমতা থাকলেও সরকারের সঙ্গে তাদের নিয়মিতভাবেই মতবিরোধ সৃষ্টি হয় এবং এর জেরে বারবারই দেশটিতে সংকট দেখা দেয়।

মূলত কুয়েতের আইনসভা অন্যান্য উপসাগরীয় রাজতন্ত্রের দেশগুলোর আইনসভা বা অনুরূপ সংস্থাগুলোর চেয়ে বেশি প্রভাব বিস্তার করে থাকে এবং কয়েক দশক ধরে রাজনৈতিক অচলাবস্থার কারণে দেশটিতে এর আগেও মন্ত্রিসভায় রদবদল এবং পার্লামেন্ট ভেঙে দেওয়ার ঘটনা ঘটেছে।

জীবন নিয়ে উক্তি