কুয়েতে এক মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় ফেনীর যুবকের মৃত্যু হয়েছে। মৃত যুবক ফেনীর দাগনভূঞা উপজেলার ইয়াকুবপুর ইউনিয়নের বরইয়া গ্রামের মমিনুল হকের বড় ছেলে মো: আমির হোসেন (৪০)।

১০ ফেব্রুয়ারি শনিবার স্থানীয় সময় বিকেল ৪টায় কুয়েতের মিনা আবদুল্লাহ সড়কের ওফরা এলাকায় কর্মস্থল থেকে বাসায় ফেরার পথে প্রাইভেটকারের চাকা ব্লাস্ট হয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার বাইরে পড়ে মৃত্যু হয়।

গতকাল রোববার তার মৃত্যুর সংবাদ জানাজানি হলে এলাকার শোকের ছায়া নেমে আসে।

মৃতের প্রতিবেশী কুয়েত প্রবাসী মোহাম্মদ টিপু জানান, শনিবার কাজ শেষ করে আমিরসহ তিনজন প্রাইভেট কারে চড়ে বাসায় যাওয়ার সময় পথিমধ্যে ওফরা এলাকায় তাদের গাড়ির চাকা ব্লাস্ট হয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার বাইরে পড়ে যায়।

এতে ঘটনাস্থলেই আমিরের মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় অপর দুইজন গুরুতর আহত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলো। এরমধ্যে গতকাল রোববার সকালে আহত আরেকজন মৃত্যুবরণ করেন। তিনি বাংলাদেশী হলেও তার পরিচয় জানা যায়নি। আমিরের মরদেহ কুয়েত সিটির ওফরা হসপিটালের মর্গে রাখা হয়েছে। যথাযথ প্রক্রিয়া শেষে তার মরদেহ দ্রুত দেশে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হবে।

পারিবারিক সূত্র জানায়, ১৬ বছর আগে জীবিকার তাগিদে আমির কুয়েতে পাড়ি জমান। সেখানে তিনি ইলেকক্ট্রিকের কাজ করতেন। পরিবারে তার এক মেয়ে, এক ছেলে, স্ত্রী ও মা-বাবা রয়েছে। উপার্জনক্ষম আমির হোসেনকে হারিয়ে পরিবারে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

ইয়াকুবপুর ইউনিয়নের পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল ফোরকান বুলবুল বলেন, প্রবাসীদের সহযোগিতায় কুয়েতে মৃত আমিরের মরদেহ দেশে আনার জন্য প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।