বলিউডে হৃতিক রোশন ও কারিনা কাপুর এক সময় আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে ছিলেন। তার কারণ তাদের মধ্যে ঢিমে আঁচে ফুটতে থাকা প্রেম। কারিনার নামের পাশে তখনও ‘খান’ বসেনি।

তবে ‘বেবো’র প্রেম, অর্থাৎ হৃতিক তখন বিয়ে করে সংসারী। হৃতিকের প্রেমে মগ্ন কারিনা নাকি নিজের প্রায় সব কিছুই ভুলতে বসেছিলেন। শোনা যায়, হৃতিকের জন্য অভিনয় পর্যন্ত ছেড়ে দিতে রাজি ছিলেন কাপুর কন্যে।

২০০১ সালে কর্ণ জোহর পরিচালিত ‘কাভি খুশি কাভি গম’ ছবিতে একসঙ্গে অভিনয়। হৃতিক-কারিনার কাছাকাছি আসার গল্প রটতে থাকে তখন থেকেই। এরপরে একাধিক ছবিতে একসঙ্গে জুটি বেঁধে কাজ। ছবিগুলি বক্স অফিসে মুখ থুবড়ে পড়লেও ডানা মেলে হৃতিক-কারিনার রসায়ন। পেশাগত সৌজন্যের সীমা ছাড়িয়ে বাড়তে থাকে ঘনিষ্ঠতা।

ঠিক সেই সময়ে দু’জনের মাঝখানে এসে দাঁড়ায় হৃতিকের পরিবার। হৃতিকের জীবন থেকে সরে যেতে অনুরোধ করা হয় কারিনাকে। পরবর্তী সময়ে কারিনা যদিও এই সব কিছুকেই গুঞ্জন বলে উড়িয়ে দিয়েছিলেন। অতীতে এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছিলেন, “আমার খুব চিন্তা হতো যে, এই গুঞ্জন ওর দাম্পত্যে প্রভাব ফেলতে পারে। আমারও পেশাগত ক্ষেত্রে ক্ষতি হতে পারত।”

মাঝে কেটে গিয়েছে এক দশক। আর একসঙ্গে ছবি করেননি বেবো-ডুগ্গু। তবে কারিনার স্বামী সইফ আলি খানের সঙ্গে একটি ছবিতে দেখা যাবে হৃতিককে। সূত্র: আনন্দবাজার