মালয়েশিয়ায় বিদেশি শ্রমের উপর নির্ভরশীল সেক্টরগুলোতে বিদেশ থেকে কর্মী নিয়োগের আহ্বান জানিয়েছে মালয়েশিয়ান এমপ্লয়ার্স ফেডারেশন (এমইএফ)।

দেশের অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধারের জন্য বিদেশি শ্রমিকের উপর নির্ভরশীল সেক্টরগুলোতে বিদেশ থেকে শ্রমিক নিয়োগ অব্যাহত রাখার অনুমতি দিতে সরকারের প্রতি জোর দাবি তুলেছে সংগঠনটি।

সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) এমইএফের সভাপতি ড. সৈয়দ হুসেইন সৈয়দ হুসমান এক বিবৃতিতে ফেডারেশনের পক্ষ থেকে মালয়েশিয়ান সরকারের প্রতি এ আহ্বান জানান।

এমইএফ সভাপতি বলেন, স্থানীয় বেকারত্বের সমস্যাগুলো সেক্টরাল ইস্যুগুলোর সঙ্গে সম্পৃক্ত না করে বিদেশি শ্রমনির্ভর সেক্টরে বিদেশি কর্মী নিয়োগ অব্যাহত রাখতে হবে।

এদিকে নিয়োগকর্তারা ব্যবসায়িক পুনরুদ্ধারে আগ্রহী, এক্ষেত্রে তারা প্রয়োজনীয় শ্রমিকের চাহিদা পুরণ করতে না পারায় হতাশ হয়ে পড়েছেন। ৫ লাখেরও বেশি মালয়েশিয়ান বর্তমানে বেকার থাকলেও থ্রিডি কাজে স্থানীয়রা আগ্রহী নন।

সৈয়দ হুসাইন দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, নিয়োগকর্তারা প্রয়োজনীয় কর্মী পাওয়ার সব পথ শেষ করে ফেলেছেন। এক্ষেত্রে যদি নিয়োগকারীদের কাজ সম্পাদনের জন্য প্রয়োজনীয় কর্মী নিয়োগ করা না হয়, তাহলে মালয়েশিয়ার অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধারের প্রচেষ্টা মারাত্মকভাবে বিপন্ন হবে।

এমইএফ বলছে, আমাদের অবশ্যই এই বাস্তবতাকে গ্রহণ করে দেশের অর্থনীতির স্বার্থে জরুরিভাবে তা সমাধান করতে হবে।

নিয়োগকর্তারা স্বীকার করেন, বিদেশি শ্রমিকদের ব্লু কালার চাকরিতে নিয়োগ করা উচিত এবং স্থানীয়দের তত্ত্বাবধায়কের ভূমিকায় দেওয়া উচিত। দীর্ঘমেয়াদে বিদেশি কর্মী নিয়োগের জন্য একটি কার্যকর ও সামগ্রিক পদ্ধতিতে সরকারের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করার আশা করে এমইএফ।

এদিকে জোরপূর্বক শ্রম ইস্যুতে মন্তব্য করে সৈয়দ হুসেইন বলেন, দেশের অধিকাংশ নিয়োগকর্তা দায়িত্বশীল, যারা তাদের কর্মচারীদের ভালো যত্ন নেন। কিন্তু কিছু দায়িত্বহীন নিয়োগকর্তারা আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থার (আইএলও) সংশ্লিষ্ট সমস্যা সৃষ্টি করে। এমইএফ এ ধরনের দায়িত্বজ্ঞানহীন নিয়োগকর্তাদের নিন্দা জানায়, যারা দেশের ভাবমূর্তি নষ্ট করছে।

সৈয়দ হুসেইন আশাবাদী, ব্যবসাগুলো পুনরায় চালু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে মালয়েশিয়ার কর্মসংস্থানের বাজারে উন্নতি হবে, ফলে বিদেশে প্রত্যক্ষ বিদেশি বিনিয়োগ এবং বৃহৎ বহুজাতিক কোম্পানি আকৃষ্ট হবে।