সোমবার রাতে রাজস্থান রয়্যালসের বিপক্ষে ৭ উইকেটের দারুণ এক জয়ে প্লে-অফে খেলার গাণিতিক সম্ভাবনা টিকিয়ে রেখেছে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। কিন্তু ম্যাচটিতে একবারের জন্যও দেখা মেলেনি দলের অন্যতম সেরা তারকা ডেভিড ওয়ার্নারের।

ম্যাচ শুরুর আগে দলের অনুশীলনের সময় ওয়ার্নারকে একবারও যায়নি। তখন থেকেই শুরু হয় আলোচনা, তবে কী দলের সাবেক অধিনায়ককে মাঠেই আনেনি হায়দরাবাদ? উত্তর ‘হ্যাঁ!’

রাজস্থানের বিপক্ষে ম্যাচটি টিম হোটেলে বসেই দেখতে হয়েছে আসরের শুরুতে দলের অধিনায়ক থাকা ওয়ার্নারকে।

তাই স্বাভাবিকভাবেই ম্যাচ শেষে প্রশ্ন উঠেছে এ বিষয়ে। যার উত্তরে এটিকে বেশ স্বাভাবিক বিষয় হিসেবেই উল্লেখ করেছেন হায়দরাবাদ কোচ ট্রেভর বেইলিস। পাশাপাশি ইঙ্গিত দিয়েছেন সামনের ম্যাচগুলোতে অন্যান্য খেলোয়াড়দের সঙ্গেও এমনটা করা হতে পারে।

হায়দরাবাদ কোচ বলেছেন, ‘আমরা ফাইনালে উঠতে পারবো না। তাই আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি তরুণদের কাছ থেকে ম্যাচের অভিজ্ঞতা ও মাঠের পরিবেশ-পরিস্থিতি বোঝার সুযোগ করে দেবো। ওয়ার্নারই একমাত্র অভিজ্ঞ খেলোয়াড় ছিলো না, যাকে আমরা হোটেলে রেখে এসেছি।’

বেইলিস আরও যোগ করেন, ‘আমাদের দলের বেশ কয়েকজন তরুণ খেলোয়াড় আছে যাদের এখনও মাঠে নিতে পারিনি। আমরা চাইছি তাদেরকে ম্যাচ কাছ থেকে দেখার অভিজ্ঞতা দিতে। এটা হয়তো সামনের কয়েক ম্যাচে চলমান থাকবে।’

‘আসলে কোনোকিছুই চূড়ান্ত নয়। আমাদের দুই-একদিনের মধ্যে বসতে হবে এবং ১৮ জনের স্কোয়াড ঠিক করতে হবে। এটাই আসলে প্রক্রিয়া। ওয়ার্নার অবশ্যই হোটেলে বসে ম্যাচটি দেখেছে এবং ছেলেদের প্রতি সমর্থন দিয়েছে। অন্য সবার মতোই। আমরা সবাই এখানে ঐক্যবদ্ধ।’

চলতি আইপিএলে টানা বাজে ফর্মের কারণে সোমবারের ম্যাচটিতে একাদশ থেকে জায়গা হারিয়েছেন ওয়ার্নার। আইপিএলের নিজের সবচেয়ে বাজে সময় কাটানো ওয়ার্নার এবার ৮ ম্যাচে মাত্র ২৪ গড় ও ১০৭ স্ট্রাইকরেটে করেছেন ১৯৫ রান।

রাজস্থানের বিপক্ষে তার জায়গায় সুযোগ পেয়েই বাজিমাত করেছেন ইংলিশ ওপেনার জেসন রয়।

হায়দরাবাদের হয়ে নিজের অভিষেক ম্যাচেই খেলেছেন ৬০ রানের ইনিংস, জিতেছেন ম্যাচসেরার পুরস্কার। তাই পরের ম্যাচগুলোতেও নিশ্চিতভাবেই জেসন রয়ের ওপরে ভরসা করবে হায়দরাবাদ।