সৌদি আরবে যাদের বয়স ৬০ বছর বা তার ‍বেশি তাদের করোনা প্রতিরোধী টিকার বুস্টার ডোজ দেওয়া হবে। করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে ইমিউনিটি বাড়ানোর জন্যই এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ড. মোহাম্মদ আল-আবদ আল-আলি জানিয়েছেন, বর্তমানে আমরা বেশি বয়স্কদের বুস্টার ডোজ দেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছি। দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার পর যারা আট মাস অতিবাহিত করেছে তাদেরই কেবল বুস্টার ডোজ দেওয়া হবে।

তিনি সবাইকে যত দ্রুত সম্ভাব টিকা নেওয়ার আহ্বান জানিয়ে বলেন, করোনা মহামারি থেকে বাঁচার জন্য টিকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় রোববার ঘোষণা করেছে, যাদের বয়স ৬০ বছর বা তার বেশি তাদের করোনাভাইরাসের বুস্টার ডোজ অর্থ্যাৎ তৃতীয় ডোজ দেওয়া হবে।

এর আগে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছিল, যারা দীর্ঘমেয়াদি কিডনি রোগে ভুগছেন অথবা ঝুঁকিতে আছেন তাদের বুস্টার ডোজ দেওয়া শুরু হয়েছে। এখন পর্যন্ত সৌদি আরব চার কোটি ১০ লাখ ডোজ টিকা দিয়েছে। এর মধ্যে প্রায় এক কোটি ৮৩ লাখ মানুষকে টিকার দুই ডোজ দেওয়া হয়েছে।

সবাইকে করোনাভাইরাস সম্পর্কিত স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান জানানো হয়েছে। সৌদি পৌরসভাগুলো নাগরিকদের স্বাস্থ্য এবং সুরক্ষা নিশ্চিতে নিয়মিত তদারকি চালিয়ে যাচ্ছে।

এরইমধ্যে দেশটিতে সরকারি চাকুরীজীবীদের মধ্যে ৮৮ শতাংশ এবং বেসরকারি চাকুরীজীবীদের মধ্যে ৮৫ শতাংশ দুই ডোজ টিকা গ্রহণ করেছেন।

পরিসংখ্যানভিত্তিক ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্য অনুযায়ী, দেশটিতে করোনাভাইরাসে এখন পর্যন্ত মোট আক্রান্ত হয়েছে ৫ লাখ ৪৬ হাজার ৯শ ২৬ জন এবং প্রাণ হারিয়েছে ৮ হাজার ৬শ ৯৯ জন। অপরদিকে সুস্থ্য হয়ে উঠেছে পাঁচ লাখ ৩৫ হাজার ৯৫০ জন।