টাইগাররা পাঁচ ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথমটি নিজেদের করে নিল । প্রথমবারের মতো সংক্ষীপ্ত পরিসরের ক্রিকেটে অস্ট্রেলিয়াকে হারালো বাংলাদেশ। টস হেরে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ১৩১ রান করে বাংলাদেশ। এই রান তাড়া করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে সবকয়টি উইকেট হারায় আস্ট্রেলিয়া। ফলে অজিদের বিপক্ষে প্রথম বারের মতো টি-টোয়েন্টিতে ২৩ রানের জয় পায় লাল সবুজের বাংলাদেশ। এই জয়ে পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেলো বাংলাদেশ।

মঙ্গলবার (৩ আগষ্ট) মিরপুর শেরে-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে ১৩১ রান করে বাংলাদেশ। ১৩২ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরুটা ভালো করতে পারেনি আজিরা। বাংলাদেশের বোলিং তোপে তাসের ঘরের মতো ভেঙ্গে পরে অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটিং লাইন আপ। বোল হাতে অজি শিবরে প্রথম আঘাত হানে শেখ মেহেদী হাসান। অ্যালেক্স ক্যারিকে সরাসরি বোল্ড করে প্যাভিলিয়নে পাঠায় মেহেদী। স্কোর বোর্ডে কোন রানই যোগ করতে পারেনি এই ব্যাটসম্যান।

এরপর অস্ট্রেলিয়া শিবিরে দ্বিতীয় আঘাত হানে নাসুম আহমেদ। তার শিকার অ্যালেক্স ক্যারি। আউট হওয়ার আগে এই ব্যাটসম্যান করে ৯ রান। দুই বোলার যখন বোলিংয়ে এসে উইকেটের দেখা পেলেন এরপর বোল হাতে আসেন সাকিব আল হাসান। তিনি এসে বোল্ড করেন মোয়াসেস হেনরিকসকে।

১১ রান তুলতেই ৩ উইকেট হারিয়েছিল অস্ট্রেলিয়া। সেখান থেকে ‍জুটি বেঁধে মিচেল মার্শ ও ম্যাথু ওয়েড পরিস্থিতি সামলে নেন। ৩৮ রানের জুটি গড়েন। নাসুম ইনিংসের অর্ধেকতম ওভারে ফিরে এ জুটি ভাঙেন। এরপর আরও একটি উইকেট শিকার করলেন নাসুম আহমেদ। ইনিংসের ১৪ ওভারের দ্বিতীয় বলে শর্ট ফাইনে খেলার চেষ্টা করেছিলেন; কিন্তু তার পা ভেঙে দেয় স্ট্যাম্প। আউট হওয়ার আগে অ্যাগারের ব্যাট থেকে আসে ১২ বলে ৭ রান। এটি নাসুমের তৃতীয় উইকেট। আর আগে জস ফিলিপে ও ম্যাথু ওয়েডকে সাজঘরে ফেরন তিনি। তিন উইকেট পাওয়া নাসুম আবারো আঘাত হানে অজি শিবিরে।

অস্ট্রেলিয়ার টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানরা যখন ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছে তখন টাইগারদের গলার কাঁটা হয়ে দাঁড়িয়েছিলেন মিচেল মার্শ, তাকে ফিরিয়ে উল্লাসে ভাসেন নাসুম আহমেদ। আউট হওয়ার আগে এই ব্যাটসম্যান করেন ৪৫ বলে ৪৫ রান। শেষ দিকে আর কেউই উইকেটে দারতে পারেনি যার ফলে হার দিয়েই টি-টোয়েন্টি সিরিজ শুরু অজিদের।

দিনটি আজ ছিল নাসুম আহমেদের। এর আগে ৪ টি-টোয়েন্টিতে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে বাংলাদেশের সেরা বোলিং ছিল সাকিবের। ২০১৬ সালে বেঙ্গালুরুতে ২৭ রানে ৩ উইকেট নিয়েছিলেন সাকিব। আজ সে রেকর্ড ভাঙলেন নাসুম। ১৯ রানে ৪ উইকেট নিয়েছেন এই বাঁহাতি স্পিনার। নাসুম আহমেদই হয়েছে ম্যান অব দ্য ম্যাচ।

এর আগে ২০১৬ সালে সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিপক্ষে ১৩৩ রান করেও জিতেছিল বাংলাদেশ। এবার জিতল ১৩২ রানের লক্ষ্য দিয়ে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

বাংলাদেশ: ২০ ওভারে ১৩১/৭

(নাঈম ৩০, সৌম্য ২, সাকিব ৩৬, মাহমুদউল্লাহ ২০, সোহান ৩, আফিফ ২৩, শামীম ৪, মেহেদি ৭*; স্টার্ক ৪-০-৩৩-২, হেইজেলউড ৪-০-২৪-৩, জ্যাম্পা ৪-০-২৮-১, টাই ৪-০-২২-১, অ্যাগার ৪-০-২২-০)

অস্ট্রেলিয়া: ২০ ওভারে ১০৮

(কেয়ারি ০, ফিলিপি ৯, মার্শ ৪৫, হেনরিকেস ১, ওয়েড ১৩, অ্যাগার ৭, টার্নার ৮, স্টার্ক ১৪, টাই ০, জ্যাম্পা ০, হেইজেলউড ২*; মেহেদি ৪-০-২২-১, নাসুম ৪-০-১৯-৪, সাকিব ৪-০-২৪-১, মুস্তাফিজ ৪-০-১৬-২, শরিফুল ৩-০-১৯-২, মাহমুদউল্লাহ ১-০-৬-০)

ম্যান অব দ্য ম্যাচ: নাসুম আহমেদ