জাল ফেলতেই উঠে এলো ২২ কেজির কা’ত’ল, বিক্রি ৩৩ হাজার

রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া ফেরিঘাটের অদূরে পদ্মা নদী থেকে সাড়ে ২২ কেজি ওজনের একটি কা;;তল মাছ ধরা পড়েছে। মাছটি বিক্রি হয়েছে ৩৩ হাজার ৭৫০ টাকা। বৃহস্পতিবার দুপুরে দৌলতদিয়ার ছাত্তার মেম্বার পাড়া গ্রামের জেলে কাদেরের জালে মাছটি ধরা পড়ে।

জেলে কাদের জানান, বৃহস্পতিবার দুপুরের দিকে তিনি ও তার সহযোগীরা মিলে পদ্মা নদীতে মাছ ধরতে যান। তারা দুবার জাল ফেলেও কিছু পাননি। পরে দুপুর ২টার দিকে তৃতীয়বার জাল তোলার সময় বড় ঝাঁকি দিলে বুঝতে পারেন,

জালে বড় কোনো মাছ ধরা পড়েছে। জাল টেনে নৌকার কাছে আনার পর সবাই দেখতে পান, বড় একটি কা;;ত;ল মাছ ধরা পড়েছে।

পরে তারা মাছটি দৌলতদিয়া ৫ নম্বর ফেরিঘাটে নিয়ে আসেন। সেখানে এসে মাছটি ওজন দিয়ে দেখতে পান ২২ কেজি ৫০০ গ্রাম। এ সময় মাছটি নিলামে তুললে সর্বোচ্চ দরদাতা হিসেবে মৎস্য ব্যবসায়ী মো. চান্দু মোল্লা ১ হাজার ৪০০ টাকা কেজি দরে মাছটি কিনে নেন। মাছটি কিনেই তিনি ৫ নম্বর ফেরিঘাটের পন্টুনের সঙ্গে বেঁধে রাখেন।

দৌলতদিয়ার ৫ নম্বর ফেরিঘাটের চাঁদনী-আরিফা মৎস্য আড়তের স্বত্বাধিকারি চান্দু মোল্লা বলেন, পদ্মা নদীর বাইরের চর দৌলতদিয়া এলাকায় জেলে কাদের চালাকের জালে বড় একটি কাতল মাছ ধরা পড়ে। মাছটি ফেরিঘাটে নিয়ে এলে

উন্মুক্ত নিলামে অংশ নিয়ে ১ হাজার ৪০০ টাকা কেজি দরে ৩১ হাজার ৫০০ টাকায় কিনি। পরে মুঠোফোনে ঢাকার ব্যবসায়ীদের সঙ্গে যোগাযোগ করে ১ হাজার ৫০০ টাকা কেজি দরে ৩৩ হাজার ৭৫০ টাকা বিক্রি করি।

জেলা মৎস্য কর্মকর্তা জয়দেব পাল বলেন, পদ্মায় এখন প্রতিদিনই জেলেদের জালে বড় বড় আকৃতির বিভিন্ন প্রজাতির মাছ ধরা পড়ছে।