সংযুক্ত আরব আমিরাতে কঠোর বিধি মেনে ঈদ উদযাপন

উপসাগরীয় দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাতের সাতটি প্রদেশে কঠোর স্বাস্থ্যবিধি মেনে অনুষ্ঠিত হয়েছে পবিত্র ঈদুল ফিতরের জামাত।

বৃহস্পতিবার (১৩ মে) ভোর ০৫টা ৫১ মিনিট থেকে ০৬টা ০১ মিনিট, এ সময়ের মধ্যে সংযুক্ত আরব আমিরাতের প্রায় ৫ হাজার মসজিদ ও ঈদগাহ ময়দানে জামাত অনুষ্ঠিত হয়।

দেশটিতে সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী মাত্র ১৫ মিনিটের মধ্যেই খুতবা, জামাত,মোনাজাতসহ সমাপ্ত করা হয়।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের সবচেয়ে বড় ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয় রাজধানী আবুধাবির শেখ জায়েদ মসজিদে।

এছাড়াও বিশাল জামাত অনুষ্ঠিত দুবাই ও শারজাহ ঈদগাহ ময়দানে।

ইতিমধ্যে আমিরাতের রাষ্ট্রপতি শেখ খলিফা বিন জায়েদ আল নাহিয়ান, আবুধাবির ক্রাউন প্রিন্স শেখ মুহাম্মদ বিন জায়েদ আল নাহিয়ান ও আমিরাতের প্রধানমন্ত্রী দুবাইয়ের শাসক শেখ মুহাম্মদ বিন রাশেদ আল মাকতুম পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে বুধবার (১২ মে) পৃথক পৃথক বার্তায় আমিরাতে অবস্থানরত প্রায় ২০০টি দেশের নাগরিক ও বিশ্বের সকল মুসলমানদেরকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

এছাড়াও আমিরাতে অবস্থানরত প্রায় ৮ লাখ প্রবাসী বাংলাদেশিকে ভিডিও বার্তার মাধ্যমে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন আমিরাতে নিযুক্ত রাষ্ট্রদূত মুহাম্মদ আবুজাফর। তিনি প্রবাসীদেরকে সকল স্বাস্থ্যবিধি ও আমিরাতের আইন কানুন মেনে চলার আহবান জানান।

বাংলাদেশ প্রেসক্লাব ইউএই’র পক্ষ থেকেও প্রবাসী বাংলাদেশিসহ দেশবাসীকে ঈদের শুভেচ্ছা জানানো হয়েছে।

উল্লেখ্য এবারের ঈদে করোনার সংক্রমণ প্রতিরোধে আমিরাতে জনসমাগম নিষিদ্ধ রয়েছে।

ঈদকে কেন্দ্র করে জনসমাগম সৃষ্টি করলে ১০ হাজার দিরহাম জরিমানা করা হবে।

জনসমাগমের আয়োজককে ১০ হাজার দিরহাম জরিমানার পাশাপাশি সকল অতিথিকে ৫ হাজার দিরহাম জরিমানা করার ঘোষণা দিয়েছে আমিরাত প্রশাসন।