শরীয়তপুরের ৫০ গ্রামে কাল ঈদ

সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যের দেশের সঙ্গে মিল রেখে বৃহস্পতিবার (১২ মে) পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপন করবেন শরীয়তপুরে ৫০ গ্রামের মানুষ।

সুরেশ্বর দরবার শরিফের অনুসারী ৫০টির অধিক গ্রামের মানুষ বৃহস্পতিবার সকাল ৯টায় ঈদের নামাজ আদায় করবেন। ঢাকা পোস্টকে বিষয়টি জানিয়েছেন সুরেশ্বর দরবার শরিফের গদিশীন পীর শাহ নূরে কামাল সুরেশ্বরী।

তিনি বলেন, সৌদির সঙ্গে মিল রেখে রোজা রাখি ও ঈদ উদযাপন করি। বৃহস্পতিবার ঈদুল ফিতর পালন করব। সুরেশ্বর দায়রা শরিফের প্রতিষ্ঠাতা হজরত জান শরীফ শাহ সুরেশ্বরীর শরীয়তপুরসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় প্রায় দেড় কোটি মুসলমান এদিন ঈদের নামাজ পড়বেন।

তিনি আরও বলেন, করোনায় সরকারি নির্দেশনা থাকায় সীমিত পরিসরে মসজিদে মসজিদে নামাজ আদায় করব। এর আগে তারাবি নামাজও সরকারি বিধিনিষেধ মেনে পালন করেছি আমরা।

ভেদরগঞ্জের দক্ষিণ পাপরাইলের আকছার মসজিদের ইমাম মাহাবুব আলম ঢাকা পোস্টকে বলেন, দক্ষিণ পাপরাইলের ৩০টি পরিবার সৌদির সঙ্গে মিল রেখে রোজা ও ঈদ উদযাপন করে।

আমরা সুরেশ্বর পাক দরবার শরিফের আশেকান। বৃহস্পতিবার সকাল ৯টায় ঈদের নামাজ আদায় করব। সরকারিভাবে বিধিনিষেধ থাকায় বেশি মানুষ একসঙ্গে নামাজ পড়তে পারছি না।

ঈদের নামাজ শেষে করোনা মহামারির হাত থেকে রক্ষা এবং এক মাস রোজা যে রেখেছি তার ভুলত্রুটি ক্ষমার জন্য আল্লাহর কাছে প্রার্থনার আহ্বান জানান পীর শাহ নূরে কামাল সুরেশ্বরী।