সিনেমা জগতে ‘বডি ডাবল’ খুবই গুরুত্বপূর্ন একটি চরিত্র। অধিকাংশ তারকারাই তাদের কিছু গুরুত্বপূর্ন শট বা ঝুঁ;কিপূ;র্ন স্টা;ন্টের ক্ষেত্রে ‘বডি ডাবল’র সহায়তা নিয়ে থাকেন। সাগর পান্ডে তাদেরই একজন ছিলেন। যিনি বলিউড ভাইজান সালমান খানের ‘বডি ডাবল’ ছিলেন। হৃ;দরো;গে আ;ক্রা;ন্ত হয়ে হয়ে মা;রা গেছেন এই যুবক।

জানা গেছে, শুক্রবার (৩০ সেপ্টেম্বর) মুম্বাইয়ে জিম করার সময় হৃ;দরো;গে আ;ক্রা;ন্ত হন সাগর। তাঁকে মুম্বাইয়ের যোগেশ্বরীতে হি;ন্দু হৃ;দয় সম্রাট বালাসাহেব ঠাকরে ট্র;মা কেয়ার মিউনিসিপ্যাল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানেই তাঁকে মৃ;ত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা।

সাগর পাণ্ডের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছেন শাহরুখ খানের ‘বডি ডাবল’ প্রশান্ত ওয়াল্ডে। প্রশান্ত ওয়াল্ডে জানান, ‘আমি খবরটা শুনে চম;কে উঠেছিলাম। ও একেবারেই ফিট ছিল। ওর মা;রা যাওয়ার মতো বয়স হয়নি। খুব সম্ভবত সাগর পাণ্ডের বয়স ৪৫-৫০ বছরের মধ্যে। ’

সালমান খানের ‘টিউবলাইট’, ‘বজরঙ্গি ভাইজান’, ‘প্রেম রতন ধন পায়ো’, ‘দাবাং’ এর মতো জনপ্রিয় সিনেমায় সালমান খানের ‘বডি ডাবল’ হিসেবে কাজ করেছেন সাগর পাণ্ডে। তবে প্রথমবার ‘কুছ কুছ হোতা হ্যায়’ সিনেমাতে প্রথমবার ‘বডি ডাবল’ হিসেবে দেখা যায় সাগর পাণ্ডেকে। তাঁর মৃ;ত্যু;তে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন বলিউড মেগাস্টার সালমান খান।

সাগর পাণ্ডে ২০২০ সালের এপ্রিলে দেওয়া এক সা;ক্ষাৎকা;রে জানিয়েছিলেন যে, লকডাউনের কারণে আর্থিকভাবে খুবই সমস্যার মধ্যে দিন যাচ্ছে তাঁর। করোনা এবং লকডাউনের জেরে বহু সিনেমার শুটিং বন্ধ হয়ে যায়।

যদিও সাগর পাণ্ডে এটিও জানিয়েছিলেন, চলচ্চিত্রের কাজের থেকে স্টেজ শো করেই তিনি সবথেকে বেশি রোজগার করেন। এর পাশাপাশি তিনি সালমানের মতোই অবিবাহিত। তাঁরা ৫ ভাই। সবার মধ্যে তাঁর রোজগার বেশি।

তাই ভাইদের খরচও তাঁকেই চালাতে হয়। সাগর পাণ্ডের আসল বাড়ি উত্তরপ্রদেশের প্রতাপগড়ে। অভিনেতা হওয়ার স্বপ্ন নিয়েই মায়ানগরী মুম্বাইতে এসেছিলেন তিনি। কিন্তু অভিনেতা হিসেবে সফল না হওয়ার কারণেই চলচ্চিত্রে ‘বডি ডাবল’ হিসেবে কাজ করা শুরু করেন। প্রায় ৫০ টি সিনেমায় সালমানের ‘বডি ডাবল’ হিসেবে কাজ করেছেন সাগর পাণ্ডে।

উল্লেখ্য, কিছুদিন আগেই জিম করতে গিয়ে হৃ;দরো;গে আ;ক্রান্ত হন কমেডিয়ান রাজু শ্রীবাস্তব, টানা একমাসের লড়াইয়ের পরে সম্প্রতি মৃ;ত্যু হয়েছে তাঁর। তারও আগে জিম করতে গিয়ে হৃ;দরো;গে আ;ক্রান্ত হন বিগ বস বিজেতা সিদ্ধার্থ শুক্লা। জিম করতে গিয়ে একের পর এক ব্যক্তির হৃ;দরো;গে আ;ক্রান্ত হওয়ার ঘটনা চিন্তায় ফেলছে অনেককেই।