কুয়েতে কর্মরত অভিবাসীদের ফ্যামিলি ভিসার ক্ষেত্রে নতুন নির্দেশনা জারি করেছে দেশটির সরকার। এখন থেকে পরিবারের সদস্যদের জন্য ভিসার আবেদন করতে হলে অভিবাসীর মাসিক বেতন হতে হবে আটশর বেশি কুয়েতি দিনার।

মঙ্গলবার (২০ সেপ্টেম্বর) এ বিষয়ে এক নির্দেশনা জারি করে কুয়েত সরকার। খবর সিয়াসাত ডেইলি। কুয়েত সরকারের এমন সিদ্ধান্তে হতাশা প্রকাশ করেছেন দেশটিতে বসবাসরত নিম্ন আয়ের প্রবাসীরা। নতুন এই নিয়ম পুনর্বিবেচনার আহ্বান জানিয়েছেন তারা।

কুয়েতে বর্তমানে প্রায় আড়াই লাখ প্রবাসী বাংলাদেশির বসবাস। এদের মধ্যে স্বল্প কিংবা মধ্যম আয়ের সংখ্যাই সবচেয়ে বেশি। কর্মস্থলে সততা আর দক্ষতার মাধ্যমে নিজেদের অবস্থান শক্ত করছেন প্রবাসীরা। অনেকে আবার নিজ দক্ষতা এবং অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে শুরু করেছেন ব্যবসা।

কর্মস্থলের বিশেষ দায়িত্বে থাকা অনেক প্রবাসী প্রতিবছর ছুটিতে দেশে আসতে পারেন না। তাই অনেকটা বাধ্য হয়েই পরিবারের সদস্যদের নিয়ে বসবাস করতে হয় কুয়েতে।

তবে সেই সুযোগ এখন কঠিন হয়ে পড়ল প্রবাসীদের জন্য। ফ্যামিলি ভিসার ক্ষেত্রে নতুন নিয়ম চালু করেছে দেশটির সরকার। নতুন নিয়মানুযায়ী, কোনো অভিবাসীর ফ্যামিলি ভিসার আবেদনের জন্য মাসিক আয় কমপক্ষে আটশ কুয়েতি দিনার হতে হবে, যা স্বল্প ও মধ্যম আয়ের প্রবাসীদের ক্ষেত্রে জটিল হয়ে পড়বে। কুয়েত সরকারের এমন সিদ্ধান্তে হতাশা প্রকাশ করেছেন অনেক প্রবাসী।

যদিও কুয়েত সরকার বলছে, অভিবাসীদের পরিবারের সদস্যরা ফ্যামিলি ভিসা কিংবা ভিজিট ভিসায় কুয়েতে এসে কাজে যোগ দেয়ায় এ সিদ্ধান্ত। নতুন নিয়মে শুধু উচ্চ আয়ের অভিবাসীরা তাদের পরিবার নিয়ে কুয়েতে থাকলে জীবনযাত্রার মান সন্তোষজনক হবে। ওই পরিবারগুলোর অন্য সদস্যরা স্থানীয় বাজারে চাকরি খোঁজার ওপর নির্ভর থাকবেন না বলেও মনে করে কুয়েত সরকার।