নতুন এক পথচলায় নিজেকে সামিল করেছেন ঢাকাই সিনেমার আলোচিত নায়িকা অপু বিশ্বাস। শুধু নায়িকা নয়; প্রযোজক হিসেবে সিনেমায় পা রাখতে চলেছেন তিনি। সম্প্রতি তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয় থেকে ৬৫ লাখ টাকা সরকারি অনুদান পেয়েছেন অপু।

বুধবার মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে অপু বিশ্বাসের হাতে অনুদানের চেক তুলে দেন তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের সচিব। জানা গেছে, ‘লাল শাড়ি’ নামের একটি সিনেমার জন্য প্রযোজক হিসেবে অনুদানটি পেয়েছেন এ চিত্রনায়িকা। এ অর্থ প্রথম কিস্তি হিসেবে মূল টাকার ৩০ শতাংশ।

খবরটি গণমাধ্যমে প্রকাশ হলে এ নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা শুরু হয়। একদিন পরেই বিষয়টি নিয়ে কথা বললেন অপু বিশ্বাস।

তিনি বলেন, ‘আমি অনুদান ছাড়াই সিনেমা প্রযোজনা করতে পারতাম। কিন্তু কেন অনুদানের জন্য আবেদন করেছি সে নিয়ে কথা বলতে চাই। তবে এখন না। শিগগিরই বিষয়টি সবাইকে জানাব।’

নতুন ছবিটি ‘অপু-জয় প্রোডাকশন হাউজ’র ব্যানারে তৈরি হবে। তবে এখনই সিনেমার শিল্পীদের নাম প্রকাশ করতে চান না এই অভিনেত্রী।

তিনি বলেন, সেটা এখনই জানাতে পারছি না। চলতি বছরই সিনেমা নির্মাণের কাজ শুরু করব। আশা করি, দর্শকদের ভালো কিছু উপহার দিতে পারব।’

ক্যামেরার সামনে অপু বিশ্বাস অনেক অভিজ্ঞ। অভিনয়ে দীর্ঘ দেড় যুগের ক্যারিয়ার তার। একটা সময় সুপারস্টার শাকিব খানের সঙ্গে জুটি বেঁধে বেশ কিছু ছবি উপহার দিয়েছেন যার বেশিরভাগই ব্যবসাসফল হয়েছে।

কিন্তু ক্যামেরার পেছনে অপু কাজ করেননি কখনও। প্রযোজনার কাজ সম্পর্কে জানা থাকলেও, নিজে কখনও এ কাজে যোগ দেননি।

সে কাজ ভালোই পারবেন বিশ্বাস অপু বিশ্বাসের। বললেন, ‘এটা আমার জন্য নতুন একটা জার্নি, নতুন জীবন। এ নিয়ে আমি একটি স্ট্যাটাসও দিয়েছি। আশা করছি গুছিয়ে কাজ করার। আমি স্ট্যাটাসে প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ দিয়েছি। তিনি সব সময় চলচ্চিত্রের সঙ্গে ছিলেন, আশা করি আগামীতেও থাকবেন।’

আর সেজন্যই সফল হতে ভক্ত-অনুরাগীর কাছে দোয়া চেয়েছেন জনপ্রিয় এ চিত্রনায়িকা।

এর আগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অপু বলেছেন, ‘নতুন পথ চলা, নতুন জীবন, সবার কাছে দোয়া চাই। প্রধানমন্ত্রীর কাছে কৃতজ্ঞতা জানাই বাংলা চলচ্চিত্রের পাশে থাকার জন্য। আশা করি সবসময় বাংলা চলচ্চিত্রের পাশে এভাবেই তাকে পাব। জয় হোক বাংলা চলচ্চিত্রের।’

এদিকে বৃহস্পতিবার প্রকাশ পেয়েছে অপু বিশ্বাস অভিনীত কলকাতার ‘আজকের শর্টকাট’ সিনেমার একটি গান। ‘ছুঁয়ে যাওয়া হাত’ শিরোনামের গানটির পুরোটাতেই দেখা গেছে অপু বিশ্বাস ও তার সহশিল্পী গৌরবকে।

এ সিনেমার মাধ্যমে প্রথমবারের মতো কলকাতার কোনো প্রোডাকশনে কাজ করেছেন অপু বিশ্বাস। সিনেমাটি কবে মুক্তি পাবে তা এখনও চূড়ান্ত হয়নি।