দশ উইকেটের বড় পরাজয়ে সিরিজ খুইয়ে একে একে শেরে বাংলা প্রাঙ্গণ থেকে বেরিয়ে গেলেন খেলোয়াড়রা। ব্যক্তিগত গাড়িতে করে নির্বাচকদেরও মাঠ ছাড়তে দেখা গেলো। সংবাদমাধ্যম তবু অপেক্ষায়।

কেননা কথা বলবেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।

অবশেষে তিনি প্রায় পৌনে তিন ঘণ্টা পর এলেন। যেখানে সবার আগ্রহের কেন্দ্রে ছিল অধিনায়ক মুমিনুল হকের ফর্ম ও অধিনায়কত্ব। এবার কি মুমিনুলকে নিয়ে কড়াকড়ি কোনো সিদ্ধান্ত নেবে কি না বোর্ড- এমন প্রশ্নও শোনা গেছে অনেকের মুখে। তবে বিসিবি সভাপতি এসে জানালেন ভিন্ন কথা।

সাম্প্রতিক সময়ে মুমিনুলের ব্যাটিং ফর্ম নিয়ে চিন্তা থাকলেও, অধিনায়কত্ব নিয়ে ভাবছে না বোর্ড- এমনটাই জানালেন নাজমুল হাসান পাপন। এ বিষয়ে আজ (শুক্রবার) ম্যাচ শেষে মুমিনুলের সঙ্গে বসেছিলেন বিসিবি সভাপতি। সামনে আরও আলোচনা করে সমস্যা বা সমাধান খোঁজার চেষ্টা করা হবে।

পাপন বলেছেন, ‘মুমিনুলের অধিনায়কত্ব নিয়ে আমরা খুব একটা চিন্তিত নই। সমস্যাটা হচ্ছে ওর ব্যাটিং নিয়ে, ও রান পাচ্ছে না। এটা তো চিন্তার বিষয়।

একজন অধিনায়ক যখন রান করে না, তখন ওর কী মানসিক চাপটা পড়ে তা চিন্তা করেন। তাই আমরা এখন শুধু আশা করতে পারি যে ও তাড়াতাড়ি রানে ফিরুক।’

মুমিনুলের সঙ্গে বসার কথা জানিয়ে তিনি বলেছেন, ‘আজ ওর সঙ্গে একটু হালকা আলোচনায় বসেছি। সামনে আরও বসবো, কাল-পরশু ওর সঙ্গে বসবো লম্বা আলোচনায়। দেখি আলোচনা করে ও কী মনে করে। আমরা (সমাধান) বের করে ফেলবো।’

বিসিবি সভাপতি আরও বলেন, ‘মুমিনুল রান পাচ্ছে না, এটা আমাদের কাছে যেমন চিন্তার বিষয় ওর কাছেও তো খারাপ লাগার।

অধিনায়ক যখন রান করতে পারে না, তখন চাপটা অনেক বেশি। আমার ধারণা ও প্রচণ্ড মানসিক চাপে আছে। কাল-পরশু বসে খোলামেলা কথা বলে দেখি ওর মাথায় কী আছে, ও কী চিন্তা করে। তারপর জানাবো।’

উল্লেখ্য, মিরপুর টেস্টের দুই ইনিংসে ৯ ও ০ রান করেছেন মুমিনুল। এ নিয়ে টানা সাত ইনিংসে দশের আগেই আউট হলেন টাইগার অধিনায়ক। গত বছর পাকিস্তান সিরিজ থেকে শুরু করে ১৫ ইনিংসে মাত্র তিনবার তিনি দুই অঙ্কে যেতে পেরেছেন।