আজ ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া উপজেলায় নির্মাণাধীন সরকারি আশ্রয়ণ প্রকল্প পরিদর্শন করেছেন আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক।

এ সময় মই বেয়ে উঠে প্রকল্পের ঘরের গুণগত মান যাচাই করেন তিনি। আজ শুক্রবার (২৭ মে) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার উত্তর ইউনিয়নের রাজাপুর ও চানপুর আশ্রয়ণ প্রকল্পে যান মন্ত্রী।

আইনমন্ত্রী বলেন, আশ্রয়ণ প্রকল্পের অনিয়মে যারা জড়িত তাদের বিরুদ্ধে এরই মধ্যে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। এই আশ্রয়ণ প্রকল্প নিয়ে বাংলাদেশের যে কোনো জায়গায় দুর্নীতি করলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

তিনি আরও বলেন, বিএনপি মিথ্যা বলতে অভ্যস্ত। দেশের ভালো হোক তারা চায় না। জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগের সরকার যে স্বপ্নের পদ্মা সেতু বানাতে পেরেছে এবং সেটা বাংলাদেশের জনগণের অর্থায়নে হয়েছে, এটা তাদের সহ্য হচ্ছে না। তাই অপপ্রচার চালাচ্ছে। জনগণকে অনুরোধ করবো তাদের অপপ্রচারে কান না দিতে।

এর আগে গত ২৮ এপ্রিল পরিদর্শনে গিয়ে আখাউড়া উপজেলায় সাত জায়গায় নির্মাণাধীন আশ্রয়ণ প্রকল্পের ১৪২টি ঘরের মধ্যে ৮৮টি ঘর নির্মাণে অনিয়ম পান জেলা প্রশাসক শাহগীর আলম। এ সময় তিনি ইউএনও, এসিল্যান্ড ও প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তাকে ভর্ৎসনা করেন।

এরই পরিপ্রেক্ষিতে ২২ মে চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়ে এক প্রজ্ঞাপনে আখাউড়ার ইউএনও রুমানা

আক্তারকে রাঙ্গামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলায় ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) সাইফুল ইসলামকে বান্দরবানের থানচি উপজেলায় বদলি করা হয়।