স্পিনের দেশে স্পিন ভালো খেলতে পারেন না ব্যাটাররা! দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের শেষদিকে টেস্ট অধিনায়ক মমিনুল হকের এমন বক্তব্য নিয়ে তোলপাড় হয়েছিল। অথচ সারা বছর স্পিন সহায়ক স্লো উইকেটে খেলে আসছেন এবং অনুশীলন করছেন বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা।

দক্ষিণ আফ্রিকার পেস সহায়ক উইকেটে তাদের স্পিনারদের কাছেই কাবু হয় বাংলাদেশ। আজ মমিনুলের সেই বক্তব্যের পক্ষেই কথা বললেন সাবেক অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা।

বিকেএসপিতে আজ বসেছিল তারার মেলা। ডিপিএলে মাশরাফি-সাকিবের মুখোমুখি হয়েছিলেন তামিম ইকবাল। ম্যাচ শেষে মাশরাফি সাংবাদিকদের বলেন, ‘(স্পিন দুর্বলতা) সব সময়ই ছিল। আমরা কখনো স্পিন ভালো খেলতাম না।

আমাদের ঘরোয়া ক্রিকেট দেখেন, প্রথম শ্রেণি ক্রিকেট দেখেন, স্পিনাররা ৭/৮টা ইভেন অনিয়মিত স্পিনাররাও ৫/৬টা করে উইকেট পায়। আপনি যদি জাতীয় লিগ দেখেন, এই লিগে খেয়াল করেন। তার মানে পরিষ্কার যে আমরা স্পিন অত ভালো খেলি না। ‘

তিনি বলেন, ‘টপ ক্লাস স্পিন লাইক সাকিব খেললে তো…রাজ্জাক যখন খেলেছে, মোশরাফ রুবেল মারা গেল ওরও কিন্তু অলমোস্ট ৪০০ উইকেট প্রথম শ্রেণিতে। আপনি যদি খেয়াল করেন আমরা কোনো সময়ই (পারিনি)।

তারা তো প্রায় ২০ বছর ধরে ক্রিকেটটা খেলে আসছে। তার মানে আমরা কোনো সময় স্পিনটা ভালো খেলিনি। এখান থেকে আন্তর্জাতিক লেভেলে তো আরো অভিজ্ঞ বোলার। তাদের ভ্যারিয়েশন আছে, টার্ন আছে। অনেক ভ্যারিয়েশন আছে। তাই চ্যালেঞ্জটা আমাদের স্পিনে সব সময় থাকে। ‘

বাংলাদেশের জয় পাওয়া ম্যাচেও ব্যাটাররা বিশেষ করতে পারেননি বলে উল্লেখ করেন মাশরাফি, ‘আমরা যদি টেস্ট ম্যাচ জেতাগুলো দেখেন, সে ক্ষেত্রে দেখবেন যে আমরা বোলিং ভালো করেই জিতেছি। ব্যাটিং হয়তো বা ২৫০/২২০।

ওরা হয়তো বা ওই রানটা করতে পারেনি। আবার আমরা ১৫০/২০০ করে ওদের স্পিনে আটকে দিয়েছি। তাই উইকেট যদি স্পিন হয় আমাদের স্পিনাররাও ম্যাচ জিতিয়েছে। তবে ওই বললাম যে আমাদের স্পিনাররাও ভালো এই উইকেটে। ‘