দিল্লি ক্যাপিটালস শিবিরে করোনা ভীতি ধীরে ধীরে বাড়ছে। আগেই জানা গিয়েছিল, মিচেল মার্শ করোনায় আক্রান্ত। এবার জানা গেলো, তাকে হাসপাতালে ভর্তি করতে হয়েছে। দিল্লি ক্যাপিটালসের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে এই খবর জানানো হয়েছে। দলের মেডিকেল টিম মার্শের অবস্থা নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করছে বলেও জানানো হয়েছে।

সূত্রের খবর, মার্শের শরীরে করোনার উপসর্গ রয়েছে। সিটি ভ্যালু ১৭। তাই কোনো ঝুঁ;কি না নিয়ে মিচেল মার্শকে হাসপাতালে ভর্তি করে দেওয়া হয়েছে।

দিল্লি টিম কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ‘দিল্লি ক্যাপিটালসের অলরাউন্ডার মিচেল মার্শের কোভিড -১৯ পরীক্ষার ফল পজিটিভ হয়েছে। এর জেরে তাঁকে একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। দিল্লি ক্যাপিটালস মেডিক্যাল টিম মার্শের অবস্থা নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করছে।

দিল্লি ক্যাপিটালস বায়ো-বাবলের আরও কয়েকজন সদস্য, সহকারী সাপোর্ট স্টাফরাও পজিটিভ হয়েছেন। যদিও তারা সবাই উপসর্গহীন। তাদের পরিস্থিতির উপরেও ফ্র্যাঞ্চাইজি নিবিড়ভাবে নজর রাখছে।’

দলের পক্ষ থেকে আরও জানানো হয়েছে, ‘বায়ো বাবলের বাকি সদস্যরা বর্তমানে তাদের নিজেদের ঘরে আইসোলেশনে রয়েছেন এবং তাদের নিয়মিত পরীক্ষা করা হবে।’

এখনও পর্যন্ত দিল্লি ক্যাপিটালসের মোট তিনজনের কোভিড পজিটিভ রেজাল্ট এসেছে। মার্শ ছাড়াও, ফিজিও প্যাট্রিক ফারহার্ট এবং একজন সাপোর্ট স্টাফ করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। এছাড়া দিল্লি ক্যাপিটালসের টিম হোটেলের তিনজন স্টাফও করোনা পজিটিভ বলে খবরে প্রকাশ। সোমবারের আরটি-পিসিআর পরীক্ষায় অবশ্য দিল্লির বাকি খেলোয়াড়দের করোনার রেজাল্ট নে;গেটি;ভ এসেছে।

প্রথমে দিল্লি ক্যাপিটালসের সাপোর্ট স্টাফদের মধ্যে ফিজিও প্যাট্রিক ফারহার্টও করোনা আ;ক্রা;ন্ত হন। ফারহার্টের পর মার্শের পরীক্ষার ফল প;জিটি;ভ আসে। যার ফলে সোমবার দিল্লি ফ্যাঞ্চাইজির পুনের যাওয়ার পরিকল্পনা বাতিল করা হয়। সাবধানতা হিসেবে দলের সব সদস্যকে হোটেলে নিজেদের ঘরে আইসোলেশনে রাখা হয়েছে।

দিল্লি শিবিরে করোনা আতঙ্কের সঙ্গে সঙ্গে আইপিএলের ম্যাচকে ঘিরেও অনিশ্চয়তা তৈরি হয়েছে। বিশেষ করে দিল্লির পরের দু’টি ম্যাচ রয়েছে পাঞ্জাব কিংস এবং রাজস্থান রয়্যালসের বিরুদ্ধে যথাক্রমে বুধবার এবং শুক্রবার। এই ম্যাচ দু’টিকে ঘিরে তৈরি হয়েছে অনিশ্চয়তা।

এদিন বিসিসিআই-এর এক সিনিয়র কর্মকর্তা পিটিআইকে বলেছে, ‘মিচেল মার্শের আরটি-পিসিআর প্রথম রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছিল। তবে দ্বিতীয় আরটি-পিসিআর রিপোর্ট পজিটিভ আসে। অন্য সব সদস্যদের আরটি-পিসিআর টেস্টে নেগেটিভ এসেছে। বুধবারের দিল্লি এবং পাঞ্জাবের মধ্যে ম্যাচ বাতিল হওয়ার আপাতত সম্ভাবনা নেই।’

শনিবার দিল্লি মুম্বাইয়ের ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে রয়েল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুর বিরুদ্ধে খেলেছেন। বিভিন্ন মিডিয়া রিপোর্ট অনুসারে জানা যাচ্ছে, দিল্লির ফিজিও কোভিড পজিটিভ হওয়ার কারণে খেলোয়াড়দের সেই ম্যাচে একে অপরের সঙ্গে হাত মেলাতে নিষেধ করে দেয়া হয়েছিল।

গত বছরের ঘটনার পর, বিসিসিআই এবার তাই বাড়তি সতর্কতা নিয়েছে। একই ধরনের প্রাদুর্ভাব যাতে না ঘটে, সে জন্য কড়া পদক্ষেপ নিয়েছে বিসিসিআই। খেলোয়াড়দের যাতে বিমানে ভ্রমণ করতে না হয়, তা নিশ্চিত করতে টুর্নামেন্টের পুরো লিগ পর্বটি মহারাষ্ট্রের চারটি ভেন্যুতে খেলানো হচ্ছে। তবুও শেষ রক্ষা হল না।