ঢাকাই সিনেমার এক সময়ের জনপ্রিয় চিত্রনায়ক সোহেল চৌধুরীকে দুনিয়া থেকে সরিয়ে দেওয়ার ২৪ বছর পর মামলার প;লা;ত;ক এবং চার্জশিটভুক্ত ১ নম্বর আ;সা’মি বোতল চৌধুরীকে গতকাল ৬ এপ্রিল মঙ্গলবার আ;ট;ক করে র‍্যাব।

গতকাল ৬ এপ্রিল রাতে ঢাকার গুলশানের ২৫/বি ফিরোজা গার্ডেন নামের একটি বাড়ি থেকে আসামি আশিষ রায় ওরফে বোতল চৌধুরীকে তাকে আ;ট;ক করে র‍্যাব।

২৪ বছর পর এই নায়ক সোহেল চৌধুরীর খু; ‘নি আ;;ট;ক হওয়ার সারা দেশে চলছে নানা আলোচনা।

এদিকে, পিতার খু; ;নি আ;ট;ক হলেও এ নিয়ে চিত্রনায়ক সোহেল চৌধুরীর সন্তানেরা সাংবাদিকদের কাছে মুখ খুলেন নি

তবে সোহেল চৌধুরীর মেয়ে লামিয়া চৌধুরী সোস্যাল মিডিয়া ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন।

সেখানে তিনি কারও নাম ও ঘটনা উল্লেখ না করে লিখেছেন, ‘ভালো আছি ভালো থেকো/ আকাশের ঠিকানায় চিঠি লিখ।’

ধারণা করা হচ্ছে, হয়তো পিতার উদ্দেশ্যেই কথাগুলো লিখছেন তিনি।

আবার এমনও হতে পরে মা নায়িকা দিতির জন্যও তার এই কথা।

তারকা দম্পতি সোহেল চৌধুরী ও পারভীন সুলতানা দিতি। তাদের ২ সন্তান। বড় মেয়ে লামিয়া চৌধুরী। তার ছোট ছেলে শাফায়েত চৌধুরী।

মেয়ে থাকেন ঢাকায় আর ছেলে শাফায়েত নেদারল্যান্ডসের রিয়ারসন ইউনিভার্সিটিতে লেখা-পড়া করেছেন। বর্তমানে সেখানে বসবাস করছেন। সেখানেই করেছেন বিয়ে।

জানা যায় ১৯৯৮ সালের ১৭ ডিসেম্বর বনানী ট্রাম্পস ক্লাবের নিচে নায়ক সোহেল চৌধুরীকে গু; ‘লি করে হ; ‘ত্যা করা হয়।

এ ঘটনার তার ভাই তৌহিদুল ইসলাম চৌধুরী গুলশান থানায় মা;ম;লা দায়ের করেন।

তদন্ত শেষে ১৯৯৯ সালে বোতল চৌধুরী-সহ ৯ জনকে অ;ভি’যু;ক্ত করে চার্জশিট দেয় ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ।