প্রেমিকাকে রাস্তায় ফেলে পালালেন প্রেমিক। পরে প্রেমিকের বাসার সামনে বিয়ের দাবিতে অনশনে বসে প্রেমিকা। মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) সন্ধ্যায় নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলার নাজিরপুর ইউনিয়নে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ইউনিয়নের হামিদ আলীর ছেলে মোমিন আলীর সিংড়া উপজেলার চামারি ইউনিয়নের এসএসসি পরীক্ষার্থী এক ছাত্রীর সঙ্গে ছয় মাস ধরে প্রে;মের স;;ম্পর্ক গড়ে ওঠে।

সেই সম্পর্কের জেরে তাকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে একাধিকবার শা;রী;রিক স;ম্প;র্ক করেন মো;মিন। পরে বিয়ের কথা বললেও বিভিন্ন অজুহাত দে;খিয়ে স;ময় ক্ষে;প;ণ করতে থাকেন মোমিন।

অবশেষে মঙ্গলবার বিকেল ৪টার দিকে মেয়েটি মোমিনের বাড়িতে এসে ঢুকলে তাকে মোমিন ও তার পরিবারের সদস্যরা ধাক্কা দিয়ে রাস্তায় ফেলে দিয়ে গেট তালা দিয়ে পালিয়ে যায়। পরে সে বিয়ের দাবিতে মোমিনের বাড়ির গেটের সামনের রাস্তায় অনশন শুরু করে। পরে মোমিনের এক প্রতিবেশী তার বাড়িতে মেয়েটিকে আশ্রয় দেন।

এ বিষয়ে মোমিন আলী ও তার পরিবারের সদস্যরা পলাতক থাকায় কারও সঙ্গে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

ভুক্তভোগী ছাত্রী জানায়, মোমিন আমা;কে বি;য়ের প্র;লো;ভন দে;খিয়ে একাধিকবার শা;রী;রিক সম্প;র্ক স্থা;পন

করেছে। পরে তাকে বি;য়ের কথা বললে বিভিন্ন অজুহাতে এড়িয়ে যায়। এখন আমার আ;ত্মহ;ত্যা ছা;ড়া আর কোনো উপায় থাকবে না।

গুরুদাসপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আব্দুল মতিন জানান, সরেজমিনে গিয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।