দাদাকে হারিয়ে কান্না থামছেই না আবদুল কাদেরের নাতনি লুবাবার

জনপ্রিয় অভিনেতা আব্দুল কাদের শনিবার (২৬ ডিসেম্বর) সকাল ৮টা ২০ মিনিটে রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মা;রা যান। তারপর থেকেই কা;ন্না থামছে না আবদুল কাদেরের নাতনি লুবাবার।

অভিনেতার স্বজনদের কাছ থেকে সে কথাই জানা গেল। ডিওএইচএস জামে মসজিদে বাদ জোহর অনুষ্ঠিত হয়েছে আবদুল কাদেরের জানাজা। সেখান থেকে ম;রদেহ লা;শবাসী অ্যাম্বুলেন্সে করে নিয়ে যাওয়া হবে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির প্রাঙ্গণে।

এমন সময় দেখা পাওয়া গেল লুবাবার। মায়ের সঙ্গে দাদার লা;শের দি;কে অ;পলক তা;কিয়ে আছে সে। কথা বলতে চাইলেই ফু;পিয়ে কেঁ;দে উঠলো। জানালো দাদার দিয়ে যাওয়া শে;ষ উপদেশগুলো। লুবাবা বলে, দাদা বলে

গেছেন সবসময় যেন ভালো কাজ করি। ভালো মানুষ;দের সঙ্গে যেন চলি। সবসময় বড়;দের সঙ্গে ভালো ব্যবহার করবে।
এদিকে আবদুল কাদেরের পুত্রবধূ জাহিদা ইসলাম জেমি জানান, আজ শনিবার মাগ;রিব নামাজের পর রাজধানীর বনানীতে সমাহিত করা হবে আবদুল কাদেরকে।

‘কোথাও কেউ নেই’ নাটকের চরিত্র ‘বদি’ খ্যাত আবদুল কাদেরের জন্ম মুন্সীগঞ্জ জেলার টঙ্গীবাড়ী থানার সোনারং গ্রামে। তার বাবা মরহুম আবদুল জলিল। মা মর;হুমা আনোয়ারা খাতুন।

স্ত্রী খাইরুননেছা কাদেরের সঙ্গে সুখের দাম্পত্যে তিনি এক ছেলে ও ;এক মেয়ের জনক। রেখে গেছেন নাতি-নাতনিসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী ও বন্ধু স্বজন।