সৌদি আরবে বিমানের শিডিউল ফ্লাইট, প্রবেশের আগে পরে যা যা লাগবে

উপসাগরীয় দেশ সৌদিতে অক্টোবর মাস থেকে বিশেষ ফ্লাইটের অ;নুমতি পেয়েছে দেশের জাতীয় বিমান সংস্থা বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস। এসব ফ্লাইটে প্রবাসীদের সৌদিতে ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়া হবে। কো;ভিড-১৯ এর কারণে ১৬ মার্চ থেকে বাংলাদেশের সাথে সৌদি আরবের বিমান যোগাযোগ যোগাযোগ ব;ন্ধ হয়ে যায়। এ কারণে ১৬ মার্চ থেকে পরবর্তী সব ফ্লাইটই বা;তিল হয়ে যায়। নতুন করে কোনো টিকিট বিক্রি করছে না এয়ারলাইনসটি। টিকিট বিতরণের ক্ষেত্রে আগের ফ্লাইট বা;তিলের তারিখ ধরে পর্যায়ক্রমে টিকিট রি-ইস্যু করা হবে।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স সূত্র জানায়, জেদ্দাগামী যাত্রীদের জন্য ৩০ সেপ্টেম্বর, ১, ৪, ৫ ও ৬ অক্টোবর ফ্লাইট পরিচালনা করবে রাষ্ট্রায়ত্ব বিমান সংস্থাটি। এছাড়া রিয়াদগামী যাত্রীদের জন্য ২,৪, ৯, ১১ অক্টোবর এবং দাম্মমগামী যাত্রীদের ১,৩ ও ৫ অক্টোবর ফ্লাইট পরিচালনা করবে বিমান।

জেদ্দা: জেদ্দাগামী যেসব যাত্রীর ২২-২৪ মার্চের মধ্যে টিকিট ছিল তাদের ফ্লাইট ৩০ সেপ্টেম্বর, ২৮ সেপ্টেম্বর বিমানের বুকিং কাউন্টারে যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে। ২৫-২৮ মার্চে যাদের টিকিট ছিল তাদের ফ্লাইট ১ অক্টোবর এবং বুকিংয়ের জন্য ২৯ সেপ্টেম্বর যোগাযোগ করতে হবে। ২৯-৩১ মার্চে যাদের টিকিট ছিল তাদের ফ্লাইট ৪ অক্টোবর, বুকিংয়ের জন্য যোগাযোগ করতে হবে ৩০ সেপ্টেম্বর। ১ থেকে ৪ এপ্রিলে যাদের টিকিট ছিল তাদের ফ্লাইট ৫ অক্টোবর এবং যোগাযোগ করতে হবে ১ অক্টোবর। ৫-৮ এপ্রিলের মধ্যে যাদের টিকিট ছিল তাদের ফ্লাইট ৬ অক্টোবর এবং বুকিংয়ের জন্য যোগাযোগ করতে হবে ২ অক্টোবর।

রিয়াদ: রিয়াদগামী যেসব যাত্রীর ২২-২৩ মার্চে টিকিট ছিল তাদের ফ্লাইট ২ অক্টোবর (১ অক্টোবর রাত সাড়ে ১২টা) এবং যোগাযোগ করতে হবে ২৯ সেপ্টেম্বর। ২৪-২৫ মার্চে যাদের টিকিট ছিল তাদের ফ্লাইট ৪ অক্টোবর (৩ অক্টোবর রাত সাড়ে ১২টা) এবং যোগাযোগ করতে হবে ৩০ সেপ্টেম্বর। ২৬-২৭ মার্চের মধ্যের টিকিটধারীদের ফ্লাইট ৯ অক্টোবর (৮ অক্টোবর রাত সাড়ে ১২টা) এবং যোগাযোগ করতে হবে ৩ অক্টোবর। ২৯-৩০ মার্চের টিকেটধারীদের ফ্লাইট ১১ অক্টোবর (১০ অক্টোবর রাত সাড়ে ১২টা) এবং যোগাযোগ করতে হবে ৪ অক্টোবর।

দাম্মাম: দাম্মামগামী যেসব যাত্রীর টিকিট ১৬-১৯ মার্চের মধ্যে ছিল তাদের ফ্লাইট ১ অক্টোবর এবং যোগাযোগ করতে হবে ২৮ সেপ্টেম্বর। ২১-২৪ মার্চের টিকিটধারীদের ফ্লাইট ৩ অক্টোবর এবং যোগাযোগ করতে হবে ৩০ সেপ্টেম্বর। এছাড়া ২৬-৩০ মার্চে যাদের টিকিট ছিল তাদের ফ্লাইট ৫ অক্টোবর এবং তাদের যোগাযোগ করতে হবে ১ অক্টোবর।

ক;রোনা টে;স্ট ঢাকায়: সৌদিগামী যাত্রীদের ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে ক;রোনা নে;গেটিভ রি;পোর্টসহ বিমানবন্দরে আসতে হবে। যাত্রীদের কো;ভিড-১৯ নে;গেটিভ টে;স্ট ফলাফলের ছয়টি কপি সঙ্গে রাখতে হবে। ৪৮ ঘণ্টার সময় গণনা শুরু হবে ন;মুনা সংগ্রহের সময় থেকে। ক;রোনা নে;গেটিভ সা;র্টিফিকেট বা;ধ্যতামূলক এবং ন;মুনা সংগ্রহের ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে সৌদি আরব পৌঁছতে হবে বিধায় সব যাত্রীকে ঢাকা থেকে কো;ভিড প;রীক্ষা করতে হবে এবং ঢাকা থেকেই যাত্রা করতে হবে। বিস্তারিত তথ্য বিমানের ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে।

বিমান জানিয়েছে, ফিরতি টিকিটধারী যাত্রীদের এই ফ্লাইটে বুকিং দেওয়ার জন্য বিমান সেলস অফিসে টিকিট, পাসপোর্ট, সৌদি আরব নির্ধারিত অ্যাপস/ লিংক থেকে অ;নুমোদন ইত্যাদিসহ যোগাযোগ করতে হবে। বুকিং ‘আগে আসলে আগে পাবেন’ ভিত্তিতে হবে।

ভ্রমণের আগে ও পরে: যাত্রীদের সৌদি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় কর্তৃক জা;রি করা কো;ভিড-১৯ স্বাস্থ্য সু;র;ক্ষা নি;য়ন্ত্রণ এবং প;দক্ষেপগুলো মে;নে সৌদি আরবে প্রবেশ করতে হবে। বিমানে বোর্ডিংয়ের আগে যাত্রীদের অবশ্যই সৌদি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ডি;ক্লারেশন ফর্ম পূরণ করে স্বাক্ষর করতে হবে। সৌদি বিমানবন্দরে প্রবেশের সঙ্গে সঙ্গে বিমানবন্দর স্বাস্থ্য নিয়ন্ত্রণ কেন্দ্রে পূরণ ও স্বাক্ষর করা ফর্মটি জমা দিতে হবে। নি;র্দেশাবলি অ;মান্য করার ফলে সি;ভিল এ;ভিয়েশন আইনের ১৬৩ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী বড় অঙ্কের জ;রিমানা আ;রোপিত হবে।

বিমানের ফ্লাইট ছাড়ার ছয় ঘণ্টা আগে যাত্রীদের স্মার্ট ফোনসহ বিমানবন্দরে উপস্থিত হতে হবে। যাত্রীদের অবশ্যই সৌদি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের disclaimer form (অনুচ্ছেদ-২) এ উল্লিখিত Tataman ও Tawakkalna মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করতে হবে।

সব যাত্রীকে সৌদি আরবে পৌঁছানোর আট ঘণ্টার মধ্যে Tataman app এর মাধ্যমে তাদের আবাসস্থলের অবস্থান জানাতে হবে। সৌদিতে পৌঁছানোর পর সাত দিন নিজের বাসায় সেলফ কো;য়ারেন্টিনে থাকতে হবে। সব যাত্রীকে ক;ভিড-১৯ এর উ;পসর্গগুলোর প্রতি খে;য়াল রাখতে হবে। কোনও উ;পসর্গ দেখা গেলে তা;ত্ক্ষণিকভাবে ৯৩৭-এ কল করতে হবে। প্রয়োজনে প্রাথমিক স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্র যেতে হবে। Tataman app এ যাত্রীদের অবশ্যই প্রতিদিনের স্বাস্থ্য মূল্যায়ন করতে হবে।

সূত্র : কালের কন্ঠ